রাজশাহীতে মোটরসাইকেলের জন্য কলেজছাত্রকে হত্যা

একটি মোটরসাইকেলের জন্য রাজশাহীর পুঠিয়ার কলেজছাত্র সাইফ ইসলাম ওরফে সানিকে (২৪) হত্যা করা হয়। পুলিশ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত পুঠিয়ার বানেশ্বর থান্দারপাড়া গ্রামে সাকিব ও সাগর নামের দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।

রোববার দুপুরে জেলার পুলিশ সুপার মো. শহিদুল্লাহ সাংবাদিকদের জানান, মাদকসেবী সাকিব ও সাগর সানির মোটরসাইকেল বিক্রি করে মাদকের টাকা জোগাড় করতেই তাকে হত্যা করে। প্রথমে তাকে ডেকে নিয়ে ফেনসিডিলের সঙ্গে সানিকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে দেওয়া হয়। এরপর অচেতন হয়ে পড়লে তার গলা ও হাত-পায়ের রগ কেটে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।

এসপি জানান, শনিবার দিবাগত রাতে পুলিশ চারঘাটের মৌগাছি এলাকা থেকে সাকিবকে গ্রেপ্তার করে। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে সাগরকেও গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর রোববার দুপুরে আসামিদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।গ্রেপ্তারের পর তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুঠিয়ার বানেশ্বর বাজারের একটি গ্যারেজ থেকে সানির মোটরসাইকেলটিও উদ্ধার করা হয়েছে। আর সাকিবের বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে মোটরসাইকেলের চাবি।

শনিবার সকালে চারঘাট উপজেলার মাড়িয়া উত্তরপাড়া গ্রামের একটি কলাবাগানের পাশে সানির গলাকাটা লাশ পাওয়া যায়। তিনি পুঠিয়ার বানেশ্বর থান্দারপাড়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে। সানি নাটোর এনএস কলেজে হিসাববিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র।

সানিকে হত্যার ঘটনায় তার বাবা চারঘাট মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। সূত্রঃ পদ্মা টাইমস

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে