নিবন্ধন পরবর্তী ট্রায়াল: মস্কোর ক্লিনিকে পৌঁছেছে করোনার টিকা

ডেস্ক নিউজঃ করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মস্কোর বিভিন্ন ক্লিনিকে প্রথম দফার ভ্যাকসিনের চালান পাঠানো হয়েছে। ক্লিনিকগুলো ইতিমধ্যে তা গ্রহণ করেছে। টিকার নিবন্ধন পরবর্তী ট্রায়ালের জন্য এগুলো ক্লিনিকে পাঠানো হয়। মস্কোর ডেপুটি মেয়র আনাস্তাসিয়া রাকোভা সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

রাশিয়ার বার্তা সংস্থা তাস-এর খবরে এ কথা জানানো হয়। করোনার টিকা রাশিয়া দ্রুতগতিতে তৈরি করায় বিশ্বজুড়ে সমালোচনা চলছে। বিশেষজ্ঞরা এই টিকার নিরাপদ ও কার্যকর কিনা, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। তবে সেই সন্দেহকে নাকচ করে দিয়ে নিজের গতিতেই টিকা প্রয়োগের সময়সীমা নির্ধারণ করেছে। ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট দপ্তর ওই টিকার নিবন্ধনও দিয়েছে। আগামী অক্টোবরের মাঝামাঝি নাগাদ গণহারে টিকা প্রয়োগের ঘোষণা দিয়েছে মস্কো।

ডেপুটি মেয়র বলেন, ‘মস্কো মেডিকেল ইনস্টিটিউশন নিবন্ধন পরবর্তী ট্রায়ালের জন্য করোনাভাইরাস মোকাবিলার প্রথম দফার ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছে। এ ক্ষেত্রে পৌরসভা বহির্বিভাগের ২ নম্বর, ২২০ নম্বর ও ৬২ নম্বর ক্লিনিক অগ্রদূত হিসেবে কাজ করবে। প্রতিষ্ঠানটি পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু করার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছে। আগামী সপ্তাহে এ কাজ শুরু হবে।’

ডেপুটি মেয়র জানান, ভ্যাকসিনগুলো সুনির্দিষ্ট অনুকূল পরিবেশে বিশেষ ফ্রিজারে রাখা হয়েছে। মস্কোর বাসিন্দারা এ ট্রায়ালে অংশগ্রহণের আবেদন করে প্রথমে এ ভ্যাকসিন নিতে পারবেন।

ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল অনুমোদনে ক্লিনিকগুলোর চালানো এ পরীক্ষা কার্যক্রম রাশিয়ার স্বাস্থ্যসেবা মন্ত্রণালয় স্বীকৃতিপ্রাপ্ত। এ কর্মসূচির আওতায় ভ্যাকসিন দেওয়ার পর বিশেষজ্ঞরা সম্ভাব্য প্রতি লক্ষণগুলো নির্ধারণে স্ক্রিনিং কার্যক্রম পরিচালনা করবেন। এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের ছয় মাস ধরে নিয়মিত মেডিকেল পর্যবেক্ষণে রাখা হবে।

এ কর্মসূচিতে নারীদের অংশগ্রহণের জন্য প্রেগনেন্সি পরীক্ষার ফলাফল অবশ্যই নেগেটিভ হতে হবে এবং যেসব পুরুষ এতে অংশ নিতে যাচ্ছেন তারা পরবর্তী তিন মাস সন্তান জন্ম দেওয়ার চেষ্টা করতে পারবেন না।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে