করোনারোধী প্লাস্টিকের পর্দায় প্রিয়জনকে আলিঙ্গন!

ডেস্ক নিউজঃ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত পুরো বিশ্ব। করোনা মোকাবেলায় বিশ্বজুড়ে লকডাউনসহ সামাজিক নিরাপদ দূরত্ব বা স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলাফেরা করছে মানুষ। এছাড়াও প্রিয়জনকে করোনা মুক্ত রাখতে নিজেদের মাঝে শারীরিক দূরত্ব বাড়িয়েছে মানুষ।

তবে বেলজিয়ামসহ বিশ্বের অনেক দেশের মানুষই প্রিয়মুখগুলোর একটুখানি আলিঙ্গন পেতে ব্যবহার করছেন করোনারোধী প্লাস্টিকের পর্দা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তা ভাইরাল হয়েছে। তবে তা স্বাস্থ্যসম্মত কিনা এ নিয়ে বিশেষজ্ঞদের মতবিরোধ রয়েছে।

প্রিয়জনকে আলিঙ্গন করা মানুষের অনুভূতি প্রকাশের সবচেয়ে সেরা মাধ্যম বলে বিবেচিত। তবে প্রিয়জনকে করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে এই আলিঙ্গন করাই বন্ধ রেখেছে মানুষ। আলিঙ্গনাবদ্ধ করা হচ্ছে না জীবন-সঙ্গী, বাবা-মা, এমন কি প্রিয় সন্তানটিকেও।

তবে বেলজিয়ামের একটি বৃদ্ধ-নিবাস এই অনুভূতি প্রকাশের সুযোগ দিচ্ছে একটু ভিন্ন উপায়ে। একটি সুদৃশ্য প্লাস্টিকের আলিঙ্গন পর্দা জড়িয়ে বেলজিয়ামের বাসিন্দারা কাছে টেনে নিচ্ছেন প্রিয়জনকে।

৩৫ বছর বয়সী দর্শনার্থী আমান্ডাইন জোসেফিয়াক বলেন, ‘আমি আমার বাবাকে দেখতে এসেছি। ১১ সপ্তাহ ধরে আমাদের এখানে আসতে দেওয়া হয়নি। যেভাবেই হোক এটা কাজ করেছে। সত্যিই খুব ভাল লাগছে।’

বড় প্লাস্টিকের শিটে তৈরি পর্দার দুই পাশে থাকা পকেটে হাত ঢুকিয়ে দর্শনার্থীরা তাদের প্রিয়জনকে আলিঙ্গন করছেন সেখানে। আর প্রতিবার ব্যবহারের পর, দায়িত্বে থাকা সেবিকারা পর্দাটি জীবাণুমুক্ত করে ফেলেন।

স্পেনের কিছু হাসপাতালেও করোনা রোগীদের সাথে দেখা করার জন্য এ ধরনের পর্দার ব্যবহার শুরু হয়েছে। আর কয়েকদিন আগে জর্জিয়ার এক দাদি পুরো একটা প্লাস্টিকের ইউনিকর্ন পরে দেখা করেছেন তার প্রিয় নাতি-নাতনিদের সঙ্গে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে